Home সম্পাদকীয় অনিরাপদ তরল দুধ
সম্পাদকীয় - মে ২১, ২০১৮

অনিরাপদ তরল দুধ

বাণিজ্যিকভাবে বাজারজাতকৃত পাস্তুরিত তরল দুধের ৭৫ ভাগের বেশি সরাসরি পানের জন্য অনিরাপদ এমন তথ্য উঠে এসেছে আইসিডিডিআর,বির এক গবেষণায়। অথচ পাস্তুরিত তরল দুধ বাজারজাতকারী কোম্পানিগুলো লোভনীয় বিভিন্ন বিজ্ঞাপন ও অফার দিয়ে মানুষকে আকৃষ্ট করে বিক্রি করছে এসব দুধ।

বিষয়টি অনেক বেশি উদ্বেগের, কারণ শিশু থেকে শুরু করে বয়োবৃদ্ধ- বেশিরভাগ মানুষ এখন এ তরুল দুধের ওপর নির্ভরশীল। গ্রাম থেকে শুরু করে শহরাঞ্চল- সব জায়গায়ই গাভী পালন ও কৃষক পর্যায়ে দুধ উৎপাদন কমে যাওয়ায় পাস্তুরিত তরল দুধের খুব একটা বিকল্পও নেই মানুষের সামনে। এ অবস্থায় যদি ৭৫ ভাগের বেশি পাস্তুরিত তরল দুধ সরাসরি পানের অনুপযোগী হয়, তবে জনস্বাস্থ্যের জন্য তা বড় ধরনের দুঃসংবাদই বলতে হবে।

শুধু যে পাস্তুরিত তরল দুধই খাবারের অনুপযোগী তা-ই নয়, ফলমূল থেকে শুরু করে মাছ ও শাকসবজি পর্যন্ত নানা ভেজালে ছেয়ে গেছে। মাত্রাতিরিক্ত কার্বাইড, ফরমালিন ছাড়াও নানামুখী রাসায়নিক ব্যবহার করে একশ্রেণীর অসাধু ব্যবসায়ী অতিরিক্ত মুনাফা অর্জনের পেছনে ব্যস্ত হয়ে পড়েছে। ব্যবসায় সততা, ন্যায়নিষ্ঠা, এমনকি জনস্বাস্থ্যের মতো অতিগুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে তাদের কোনো ধরনের জবাবদিহিতা ও নৈতিক দায়বদ্ধতা নেই বললেই চলে। এ অবস্থায় বিশেষত পবিত্র রমজান মাস উপলক্ষে ফলমূল, শাকসবজি, মাছসহ সব ধরনের খাদ্যে ক্ষতিকর রাসায়নিক ও ভেজাল রোধে কঠোর নজরদারির

ব্যবস্থা নেয়া প্রয়োজন। সরকারের সংশ্লিষ্ট মহল থেকে শুরু করে নিরাপদ খাদ্য কর্তৃপক্ষ, ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ পরিষদ ও প্রশাসনকে এ বিষয়ে সতর্ক পদক্ষেপ নিতে হবে।

দুর্ভাগ্যজনক হল, শুধু যে খাদ্যে ভেজাল ভয়াবহ আকার ধারণ করেছে তা-ই নয়, জীবন রক্ষাকারী ওষুধও ভেজাল হচ্ছে এবং নকল ওষুধ তৈরি করে আসল বলে চালিয়ে দেয়ার ঘটনাও ঘটছে। ভেজাল সিরাপ পান করে শিশুমৃত্যু, এমনকি বিষাক্ত রাসায়নিক মিশ্রিত লিচু খেয়ে শিশুমৃত্যুর নজিরও দেশে কম নয়। উদ্বেগের বিষয়, এসব ঘটনায় দায়ী কাউকে শাস্তির আওতায় আনা যায়নি। ফলে ওষুধ থেকে নিয়ে পাস্তুরিত তরল দুধ- কোনোটাই অসাধু মুনাফালোভীদের থাবার বাইরে থাকেনি। সরকারের সংশ্লিষ্ট মহল অপরাধীদের ন্যায়বিচার ও কঠোর সাজার আওতায় আনতে ব্যর্থ হওয়ার কারণেই যে দিন দিন খাদ্যে ভেজালের ঘটনা বাড়ছে, তা বলার অপেক্ষা রাখে না। এর প্রতিক্রিয়ায় উচ্চ রক্তচাপ, ব্রঙ্কাইটিস, এমনকি ক্যান্সারের মতো ভয়াবহ ব্যাধি সমাজে ছড়িয়ে পড়ছে এবং এসব রোগে মানুষের মৃত্যুহার বাড়ছে। আমরা মনে করি, শিশু খাবার হিসেবে পরিচিত পাস্তুরিত তরল দুধসহ যে কোনো ধরনের খাদ্যে ভেজাল রোধে সরকারের কঠোর ভূমিকার বিকল্প নেই। রমজান মাস উপলক্ষে খাদ্যে ভেজালের বিরুদ্ধে কঠোর ভূমিকা নেয়া এখন জনদাবি।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Check Also

বাজেট অধিবেশন বসছে ৫ জুন

একাদশ জাতীয় সংসদের অষ্টাদশ অধিবেশন আগামী ৫ জুন শুরু হবে। ওই দিন বিকাল ৫টায় অধিবেশন শুরু হব…