Home কবিতা ও গল্প এগিয়ে যাওয়ার গল্প
কবিতা ও গল্প - মার্চ ২৯, ২০২১

এগিয়ে যাওয়ার গল্প

তাহমিনা লিপি,

গ্রাম কিংবা শহর কোন কিছুই আপনার জন্য বাধা হতে পারে না। তেমনি দুই জন উদ্যোক্তা সাথে কথা বলেছি, আমি তাহমিনা লিপি দৈনিক বাংলার ডাকের পক্ষ থেকে।
একজন হলেন, মুক্তা আক্তার (খাদিরানী)।উই অর্থাৎ ওমেনস এন্ড ই-কমাস এর খাদিরানীকে নিয়ে, ১ম এ কথা বলবোঃ
যার উদ্যোক্তা হওয়ার স্বপ্ন পূরনে  সহায়তা করেছে উই।পরিবারের মেজো মেয়ে মুক্তা আকতার। বয়স মাএ ২২/২৩। তবে যে বয়সে ছেলে,মেয়েরা ইন্টারনেট এ অযথা সময় কাটায়। সে বয়সে মুক্তা ইন্টারনেট সুবিধাকে কাজে লাগিয়ে সবার অগচরে নিজেকে উদ্যোক্তা হিসাবে গড়ে তুলেছেন।
সে জীবনের বাস্তবতা অনেক আগেই বুঝতে পেরেছেন।তিনবোন ও চারভাইয়ের সংসারে কিছু একটা করতে হবে।
তাই ২০১৯ সালে ১ম এ অনলাইনে কয়েকটি কাপড় দিয়ে শুরু করেন তার যাএা।
তেমন কোন প্রাতিষ্ঠানিক দক্ষতা  না থাকায়,তিনি হতাশ হয়ে পরেন।উই এর নিয়মিত ক্লাস করে, তিনি বুঝতে পারেন কি নিয়ে কাজ শুরু করা যায়।
শুরু হয় তার নতুন যাএা।
কুমিল্লার বিবিবাড়িতে বসবাস করেন মুক্তা। তার পরও সববাধা পেরিয়ে কুমিল্লার কাপড়ের দোকানগুলোতে খাদি কাপরের সন্ধন করতে থাকেন।শুরু হয় তার খাদি কাপড় নিয়ে কাজ করা।মাএ ১বছর আগে এপ্রিলে তার অডার আসে ১৫০০০ হাজার টাকার। তা ক্রমানয়ে বারতে থাকে। এখন তিনি মাসিক ২,০০০০০/২৫০০০০ ৳ অডার পেয়ে থাকেন।আপনার জন্য শুভকামনা রইল।
রাতুল সরকার রাজশাহীর বাঘাতে তার বসবাস। ২০১৯ সালে স্নানাতক শেষ  করেছেন। তিনি এরই মধ্যে গ্রামের মানুষের কাছে অতি জনপ্রিয় হয়ে উঠেছেন। চাকরি নয় অন্যদের চাকরি দেয়ার প্রবণতা থেকেই, তার এই উদ্যোগ। এক ভাই ও এক বোনের সংসার তাদের। উদ্যোক্তা জীবনের বয়স মাএ ৯ মাস। গ্রামের গাছিদের কাছ থেকে তিনি রস সংগ্রহ করে গুর তৈরি করেন।এছাড়াও তিনি নকশি কাঁথা, মৃৎশিল্প নিয়েও কাজ করছেন।এরই মধ্যে তিনি প্রায় ১৫ লক্ষ টাকার পন্য সেল করেছেন।আপনার জন্য শুভকামনা রইল।
আগামি পর্বে নতুন কোন উদ্যোক্তার গল্প নিয়ে আপনাদের সামনে নিয়ে হাজির হব ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Check Also

‘প্রস্তুতি বহু আগে থেকে ছিল’

নির্বাচন কমিশন (ইসি) গঠনে আইন পাসের বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, সরকার অনেক দিন …