Home সর্বশেষ খবর চলনবিলে নৌকাডুবি: ৪ লাশ উদ্ধার
সর্বশেষ খবর - সেপ্টেম্বর ১, ২০১৮

চলনবিলে নৌকাডুবি: ৪ লাশ উদ্ধার

পাবনার চাটমোহর উপজেলার হান্ডিয়াল এলাকার পাকপাড়া কাটাজোলায় চলনবিলে শুক্রবার সন্ধ্যায় আনন্দভ্রমণে নৌকাডুবির ঘটনায় নিখোঁজ ৫ জনের মধ্যে এক শিশু, দুই নারী ও এক পুরুষের লাশ উদ্ধার করেছে ডুবুরি দল।

তারা হলেন- ঈশ্বরদী ডাল গবেষণা কেন্দ্রের বৈজ্ঞানিক সহকারী আ. বেলাল গণি ও তাঁর স্ত্রী মমতাজ পারভীন শিউলী (৩০), ঈশ্বরদীর ছলিমপুর ইউনিয়ন পরিষদের সচিব মোশারফ হোসেনের স্ত্রী শাহনাজ পারভীন (৩০) ও ঈশ্বরদীর বিশিষ্ট ব্যবসায়ী স্বপন বিশ্বাসের মেয়ে সাদিয়া বিশ্বাস (১২)। এখনও নিখোঁজ রয়েছেন ঈশ্বরদীর ক্রীড়া সামগ্রী ব্যবসায়ী স্বপন বিশ্বাস (৩৮)। ডুবে যাওয়া নৌকার ভেতর থেকে শাহনাজ পারভীন ও উপজেলার নিমাইচড়া বিল খেকে সাদিয়ার লাশ উদ্ধার করা হয়। ডুবে যাওয়া নৌকাটি উদ্ধার করা হয়েছে। নৌকা ডুবির ঘটনায় আহত হয়েছেন অন্তত ১০ জন। এরমধ্যে চাটমোহর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে কাওসার আলীকে (১৪) ভর্তি করা হয়েছে। অন্যদের প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। নিহত ও নিখোঁজ সবাই নৌকার ভেতর ছিলেন বলে বেঁচে যাওয়া যাত্রীরা জানিযেছেন। আহত ও নিখোঁজ ব্যক্তিরা সকলেই ঈশ্বরদীতে বসবাস করেন।

ওই নৌকার যাত্রী ভাদালিয়া গ্রামের সাইদুর রহমান ও তার স্ত্রী সিনথিয়া পারভীন জানান, কুষ্টিয়া ও ঈশ্বরদী এলাকার ২৪ জন ব্যক্তি চলনবিল এলাকায় আনন্দভ্রমণের উদ্দেশ্যে ভাঙ্গুড়া উপজেলার বড়ালব্রিজ হতে একটি নৌকা ভাড়া করেন। দিনভর বিল অঞ্চলে ঘুরে সন্ধ্যায় ফেরার পথে সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে চাটমোহর উপজেলার হান্ডিয়াল বিল এলাকার কাটাজোলায় কোন কিছুর সাথে ধাক্কা লেগে নৌকাটি ডুবে যায়। আবার কেউ কেউ জানান, সূর্য ডোবার মুহূর্তের অপরূপ দৃশ্য সেলফি তুলতে নৌকার ছইয়ের উপর অনেকেই একাসাথে উঠে পড়লে ছই ভেঙ্গে নৌকা একদিকে কাত হয়ে ডুবে যায়। যাত্রীদের চিৎকারে আশপাশের নৌকা ও লোকজন ডুবে যাওয়া নৌকার যাত্রীদের উদ্ধার করে। অনেকে সাঁতরিয়ে তীরে উঠে আসেন। নৌকা ডুবির ঘটনায় এক শিশুসহ ৫ জন নিখোঁজ হয়। রাতেই রাজশাহী হতে আসা ডুবুরিরা মমতাজ পারভীন শিউলীর লাশ উদ্ধার করে।

শনিবার দুপুর পর্যন্ত আরো দু’জনের লাশ উদ্ধার করা হয়। ঘটনার পরপরই চাটমোহর থানা পুলিশ ও চাটমোহরের ফায়ার সার্ভিসের টিম ঘটনাস্থলে গিয়ে উদ্ধার অভিযান শুরু করে।

চাটমোহর থানার ওসি (প্রশাসন) মো. বদরুদ্দোজা বাবু ও হান্ডিয়াল ইউপি চেয়ারম্যান কে এম জাকির হোসেন নৌকা ডুবির ঘটনা নিশ্চিত করে জানান, নিখোঁজ ব্যক্তিদের মধ্যে ৪ জনের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। উদ্ধার হয়েছে ডুবে যাওয়া নৌকা।

এদিকে শুক্রবার সন্ধ্যার পর নৌকাডুবি ও নিখোঁজ হওয়ার খবর ঈশ্বরদীর সর্বত্র ছড়িয়ে পড়লে শোকের ছায়া নেমে আসে। রাতেই তাঁদের আত্মিয়-স্বজন ও শুভাণ্যধায়ীরা ওই এলাকায় ছুটে যান। এ রিপোর্ট লেখা (বিকেল-৩.৩০) পর্যন্ত স্বপন বিশ্বাসের লাশ উদ্ধার না হওয়ায় অনেকেই বিল এলাকায় অবস্থান করছেন।

প্রসঙ্গত, গত বছরের ৩ সেপ্টেম্বর চাটমোহর উপজেলার ছাইকোলার জিয়ালগাড়ি বিলে নৌকার ছইয়ের উপরে থাকা একই পরিবারের ৩ জন বিদ্যুতায়িত হয়ে নিহত হন। আহত হন নারীসহ অপর ৬ জন। নিহতরা ছিলেন- পাবনা সদর উপজেলার রানীগ্রামের মো. আফজাল হোসেন, তার ভাই আনোয়ার হোসেন ও আনোয়ার হোসেনের ছেলে সোহান হোসেন। ঈদুল আজহার পরদিন চলনবিলে নৌ-ভ্রমণে এসেছিলেন তারা।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Check Also

তুরস্ক এবার যেসব শর্ত জুড়ে দিল

ফিনল্যান্ড-সুইডেন ন্যাটোতে যোগ দিতে চায়। কিন্তু তাদের ন্যাটোতে যোগ দেওয়ার পথে বাধা হয়ে দাড়…