Home Uncategorized জয়পুরহাটে পুলিশ ফাঁড়ির পতিত জমিতে সবজি চাষে এক পুলিশ পরিদর্শকের সাফল্য

জয়পুরহাটে পুলিশ ফাঁড়ির পতিত জমিতে সবজি চাষে এক পুলিশ পরিদর্শকের সাফল্য


শারমিন আশা স্বর্ণা, জয়পুরহাট থেকে: যাবতীয় অপরাধ ও মাদক নির্মূলে দায়িত্ব পালনের পাশাপাশি ফাঁড়ির পতিত জমিতে কীটনাশকমুক্ত নানা জাতের মৌসুমি সবজির চাষ করে অভাবনীয় সফলতা পেয়েছেন জয়পুরহাট জেলার সদর থানাধীন চকবরকত পুলিশ ফাঁড়ির পরিদর্শক মিলাদুন- নবী । এমন উদ্যোগকে ইতিবাচক হিসেবে দেখছেন এই জেলার বাসিন্দারা।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, ফাঁড়িতে সুসজ্জিত মনোমুগ্ধকর সবজি বাগানের বিভিন্ন অংশে চাষ করা হয়েছে বেগুন, আলু, সরিষা, টমেটো, পালংশাক, লালশাক, পুইশাক, ধনিয়াপাতা, পেঁয়াজ, রসুন, কাঁচামরিচ, ফুলকপি, বাঁধাকপি, ব্রকলি, ডাটা, করলা, চাল কুমড়া, লাউ, ক্ষিরাইসহ নানা রকমের শাক-সবজি। এখানকার উৎপাদিত ঠাটকা সবজি পেয়ে খুশি ফাড়ির পুলিশ সদস্যরা।

ফাঁড়ির পুলিশ সদস্যদের অনেকেই জানান, কীটনাশক মুক্ত সবজি চাষের এ উদ্যোগ সত্যিই প্রশংসার দাবি রাখে। এ রকম সবজি বাগান প্রতিটি ফাঁড়ি ও থানায় করা গেলে পুলিশ সদস্যদের পাশাপাশি এলাকার গরীব দুঃখীরাও বিষমুক্ত সবজি পাবে।

এ বিষয়ে চকবরকত পুলিশ ফাঁড়ির পরিদর্শক মিলাদুন-নবী বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা মোতাবেক কোন স্থান যাতে পতিত না থাকে সেই চিন্তা থেকেই ফাঁড়ির পতিত জমিতে শাক-সবজির চাষ করার উদ্যোগ নিয়েছি। পুলিশের দায়িত্ব পালন করার পাশাপাশি অবসরে সবজির বাগান পরিচর্যায় ব্যস্ত থাকতে ভাল লাগে। আর এই ভাললাগা থেকেই মূলত ফাঁড়ির পতিত জমিকে সঠিকভাবে ব্যবহারের জন্য সবজির চাষকেই বেছে নিয়েছি। সঠিক পরিচর্যার কারণে ফলনও বেশ ভালো হয়েছে। এখানকার উৎপাদিত কীটনাশকমুক্ত সবজি ফাঁড়ির সকল পুলিশ সদস্যদের পাশাপাশি এলাকার গরীব দুঃখী মানুষদেরও পুষ্টির চাহিদা মেটাচ্ছে।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Check Also

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে অনিয়ম দূর করুন

‘বলপ্রয়োগ’ সমস্যা সমাধানের উত্তম পন্থা নয়। তাতে বরং পরিস্থিতি আরো ঘোলাটে হয়, সঙ্কট আরো বাড়…