Home Uncategorized তারেক-ফখরুলের বিরুদ্ধে মামলা : পুলিশকে তদন্তের নির্দেশ

তারেক-ফখরুলের বিরুদ্ধে মামলা : পুলিশকে তদন্তের নির্দেশ

 

নিজস্ব প্রতিবেদক : বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান, দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরসহ কয়েকজনের বিরুদ্ধে বাংলাদেশ জননেত্রী পরিষদের সভাপতি এ বি সিদ্দিকীর দায়ের করা মামলাটি বংশাল থানা পুলিশকে তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন আদালত। পাঞ্জাবি ছিঁড়ে ফেলা ও মুজিব কোট খুলে নেওয়াসহ আগের মামলা তুলে নেওয়ার হুমকির অভিযোগে মামলা দায়ের করেন এ বি সিদ্দিকী।

রোববার ঢাকা মহানগর হাকিম আবু সুফিয়ান মো. নোমান বাদীর জবানবন্দি গ্রহণ শেষে অভিযোগের বিষয়ে তদন্ত করে বংশাল থানা পুলিশকে প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দেন।

মামলায় বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য খন্দকার মোশাররফ হোসেন, আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী, গয়েশ্বর চন্দ্র রায় এবং যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভীসহ অজ্ঞাত আরো পাঁচজনকে আসামি করা হয়েছে।

বাদীর অভিযোগ, তিনি গত ৩০ এপ্রিল খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে করা একটি মানহানির মামলার হাজিরা দিতে সকাল ৭টায় রামপুরা থেকে বাসে করে রওনা হন। সকাল ৮টার দিকে তাঁতীবাজার মোড়ে নেমে হেঁটে আদালতের দিকে যাচ্ছিলেন। তার পেছনে থাকা পাঁচজন বিএনপির কর্মী তার পাঞ্জাবি ধরে টেনে গতি রোধ করে এবং তা ছিঁড়ে ফেলে। তাকে (এ বি সিদ্দিকী) বলে, তোকে পেয়েছি আর ছাড়া যাবে না। কারণ, তুই আমাদের মা ও আমাদের নেত্রী বেগম খালেদা জিয়া এবং বিএনপির নেতাদের বিরুদ্ধে অনেকগুলি মামলা করেছিস। তোর একাধিক মামলায় গ্রেপ্তারি পরোয়ানা থাকায় আমাদের মা মুক্তি পাচ্ছে না। তাই তোকে আজ খুন করব। কারণ, আমাদের বিএনপির তারেক রহমানের নির্দেশে ঊর্ধ্বতন নেতাদের হুকুমে তোকে প্রস্তাব দিচ্ছি, এক মাসের মধ্যে মামলা তুলে নিবি। তা না করলে তোর পরিণতি ভয়ঙ্কর হবে। এক মাসের জন্য তোকে মুক্ত করে দিলাম। যদি স্বেচ্ছায় মামলা তুলে না নিস তাহলে তোকে মরতে হবে। তোকে তোর সরকারও আমাদের হাত থেকে আর বাঁচাতে পারবে না। তোকে নুসরাতের মতো জ্বলন্ত আগুনে পুড়িয়ে মারব। যদি বাঁচতে চাস, কথাটি মনে রাখিস। আর যদি মামলা প্রত্যাহার না করিস তাহলে তোকে এমনভাবে খুন করব পৃথিবীর কেউ তোকে বাঁচাতে পারবে না। এসব কথা বলে দুর্বৃত্তরা তার মুজিব কোট খুলে নিয়ে যায় এবং বলে, তোর বাবার মার্কা মুজিব কোট খুলে নিয়ে গেলাম। শেখ মুজিবের জুলুমবাজ মুজিব কোট আর আমরা দেখতে চাই না। এই বলে বাদীর পকেটে থাকা ২ হাজার ২০০ টাকা ছিনিয়ে নিয়ে বলে, কোনো চিল্লাফাল্লা করবি না, এদিক-ওদিক দেখবি না, সোজা আদালতের দিকে চলে যা। আমরা যা বলেছি, এই শর্ত ভঙ্গ করবি না। না হলে তোকে জাহান্নামে যেতে হবে, এটা যেন মনে থাকে।

আসামিদের বিরুদ্ধে অভিযোগ আমলে নিয়ে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করে আসামিদের আটক করে জেল হাজতে আটক রাখার আবেদন করেন এ বি সিদ্দিকী।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Check Also

মিলেছে তুরস্কের ছাড়পত্র: এবার মুখ খুলল রাশিয়া

ফিনল্যান্ড ও সুইডেনের বিরুদ্ধে সন্ত্রাসীদের মদদ দেওয়ার অভিযোগ তুলে তুরস্ক দেশ দুটির মার্কি…