Home অর্থ ও বাণিজ্য নতুন বছরেও চাল-তেলের দামে আগুন
অর্থ ও বাণিজ্য - আজকের সংবাদ - জানুয়ারি ২, ২০২১

নতুন বছরেও চাল-তেলের দামে আগুন

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের বাজার গত সপ্তাহের তুলনায় মোটামুটি স্থিতিশীল বলে রাজধানীর খুচরা বিক্রেতারা দাবি করলেও আমন মৌসুমে চালের চড়া দাম ও ভোজ্য তেলের দর বৃদ্ধির মধ্যে নতুন বছর শুরু হয়েছে।

শনিবার রাজধানীর কয়েকটি বাজার ঘুরে দেখা যায়, চালের দাম কেজিপ্রতি ২ থেকে ৩ টাকা পর্যন্ত বেড়েছে। ব্যবসায়ীরা বলছেন, চাল আমদানির ওপর শুল্ক কমানোর ঘোষণার পর দাম উল্টো বাড়তির দিকে।

কারওয়ান বাজারের ব্যবসায়ীরা জানান, সরু মিনিকেট চাল ৬২ টাকায়, নাজিরশাইল ৬২ থেকে ৬৪ টাকায় আর বিআর ভালো মানের ২৮ চাল ৫২ থেকে ৫৪ টাকা দরে বিক্রি হয়। খুচরা বাজারে চালের দাম আরও বেশি। মহল্লার খুচরা দোকান থেকে মানুষকে সরু মিনিকেট চাল ৬৫-৬৭ টাকা দরে কিনতে হচ্ছে। আর ভালো মানের বিআর-২৮ চাল বিক্রি হয় প্রতি কেজি ৫৬ থেকে ৬০ টাকা দরে।

এদিকে চালের মতোই বাড়তি দামে বিক্রি হচ্ছে তেল। ১ লিটার খোলা সয়াবিন তেল বিক্রি হচ্ছে ১০৭ থেকে ১০৯ টাকায়, যা এক সপ্তাহ আগে ১০৪ থেকে ১০৭ টাকা ছিল। ১ লিটারের বোতলজাত তেল বিক্রি হয় ১২০ থেকে ১২৫ টাকায়, যা গেল সপ্তাহে ৫ টাকা কম ছিল। আর খোলা পাম তেলের দাম ৯৫ থেকে ৯৭ টাকায় বিক্রি হয়েছে, যা গেল সপ্তাহে ৯৩ থেকে ৯৫ টাকা ছিল।

ব্যবসায়ীরা বলছেন, কোম্পানিগুলো তেলের দাম আগেই বাড়িয়েছিল। সেই দাম নতুন বছরে এসে বাজারে প্রভাব পড়েছে। তাঁরা এত দিন পুরোনো দামে তেল বিক্রি করছিলেন। তেলের দাম দু-এক দিনের মধ্যে আরও বাড়তে পারে বলে ব্যবসায়ীদের আশঙ্কা।

চাল-তেল ছাড়া নতুন বছরে অন্য নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের বাজার আগের সপ্তাহের তুলনায় মোটামুটি স্থিতিশীল রয়েছে।

কারওয়ান বাজারে সরেজমিনে দেখা যায়, প্রতি কেজি নতুন দেশি পেঁয়াজ ৩৬ টাকা থেকে ৩৮ টাকায় বিক্রি হচ্ছে, যা গত সপ্তাহে ছিল ৪০ টাকা থেকে ৪৪ টাকা। আমদানি করা পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে মানভেদে ৩৫ টাকা থেকে ৪০ টাকায়।

বাজার ঘুরে দেখা যায়, গরুর মাংস ৫৫০ টাকা, ব্রয়লার মুরগি ১২৫ টাকা, লেয়ার ১৬৫ টাকা, পাকিস্তানি কর্ক ১৮০ টাকা, দেশি মুরগি ৩৮০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

গত সপ্তাহের তুলনায় এই সপ্তাহে সবজির দাম আরও কমেছে। দেশি আধাপাকা টমেটো পাওয়া যাচ্ছে প্রতিকেজি ৪০ টাকা থেকে ৫০ টাকায়, যা আগে ছিল ৬০ টাকা থেকে ৭০ টাকা। কাঁচা মরিচের কেজি ৮০ টাকা থেকে ১০০ টাকার মধ্যে, শিমের কেজিও ৪০ টাকার মধ্যে রয়েছে। প্রতি কেজি শসা ও গাজর ৪০ থেকে ৫০ টাকায়, ফুলকপি ও বাঁধাকপি প্রতিটি ১৫ থেকে ২০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Check Also

জেরুসালেমে ফিলিস্তিনির বাড়ি গুড়িয়ে দিলো ইসরাইল

অধিকৃত ফিলিস্তিনি ভূখণ্ড পূর্ব জেরুসালেমে এক ফিলিস্তিনি পরিবারের বাড়ি গুড়িয়ে দিয়েছে ইসরাইল…