Home জাতীয় নতুন মৃত্যু ৩৮, শনাক্ত ২১৯৮
জাতীয় - স্বাস্থ্য - ডিসেম্বর ২, ২০২০

নতুন মৃত্যু ৩৮, শনাক্ত ২১৯৮

নিউজ ডেস্কঃ করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে দেশে একদিনে আরও ৩৮ জনের মৃত্যু হয়েছে। নতুন রোগী শনাক্ত হয়েছে আরও ২ হাজার ১৯৮ জন। বুধবার বিকেলে সংবাদমাধ্যমে বিজ্ঞপ্তি পাঠিয়ে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের পক্ষ থেকে দেশে করোনাভাইরাস পরিস্থিতির এই সবশেষ তথ্য জানানো হয়।

সেখানে বলা হয়, সকাল ৮টা পর্যন্ত শনাক্ত হয়েছেন ২ হাজার ১৯৮ জন। এ নিয়ে দেশে করোনায় মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৪ লাখ ৬৯ হাজার ৪২৩ জন। গেল এক দিনে মারা যাওয়া ৩৮ জনকে নিয়ে দেশে করোনাভাইরাসে মোট মৃতের সংখ্যা ৬ হাজার ৭১৩ জনে দাঁড়াল।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের হিসাবে বাসা ও হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আরও ২ হাজার ৫৬২ জন রোগী সুস্থ হয়ে উঠেছেন গত এক দিনে। তাতে সুস্থ রোগীর মোট সংখ্যা বেড়ে ৩ লাখ ৮৫ হাজার ৭৮৬ জন হয়েছে।

অধিদপ্তর জানিয়েছে, গত ২৪ ঘণ্টায় সারা দেশে ১১৮টি ল্যাবে ১৫ হাজার ৯৭২টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। এ পর্যন্ত পরীক্ষা হয়েছে ২৮ লাখ ৪ হাজার ১৭৪টি নমুনা।

২৪ ঘণ্টায় নমুনা পরীক্ষার বিবেচনায় শনাক্তের হার ১৩ দশমিক ৭৬ শতাংশ। পরীক্ষা বিবেচনায় এ পর্যন্ত মোট শনাক্তের হার ১৬ দশমিক ৭৪ শতাংশ। শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৮২ দশমিক ১৮ শতাংশ এবং মৃত্যুর হার ১ দশমিক ৪৩ শতাংশ।

গেল এক দিনে যারা মারা গেছেন, তাদের মধ্যে ২৫ জন পুরুষ আর নারী ১৩ জন। আর তাদের মধ্যে ৩৭ জন হাসপাতালে ও ১ জন বাড়িতে মারা গেছেন।

মৃতদের মধ্যে ২৫ জনের বয়স ছিল ৬০ বছরের বেশি। ৮ জনের বয়স ৫১ থেকে ৬০ ও ৪১ থেকে ৫০ বছরের মধ্যে। ৩ জনের বয়স ৩১ থেকে ৪০ বছরের মধ্যে এবং ২ জনের বয়স ২১ থেকে ৩০ বছরের মধ্যে ও ১০ বছরের কম ছিল।

মৃতদের মধ্যে ৩০ জন ঢাকা বিভাগের, ৪ জন চট্টগ্রাম বিভাগের এবং ১ জন করে মোট ২ জন রাজশাহী ও খুলনা বিভাগের এবং ২ জন রংপুর বিভাগের বাসিন্দা ছিলেন।

বাংলাদেশে করোনাভাইরাসের প্রথম সংক্রমণ ধরা পড়েছিল গত ৮ মার্চ। তা সাড়ে ৪ লাখ পেরিয়ে যায় ২৪ নভেম্বর। এর মধ্যে গত ২ জুলাই ৪ হাজার ১৯ জন কোভিড-১৯ রোগী শনাক্ত হয়। যা এক দিনের সর্বোচ্চ শনাক্ত।

প্রথম রোগী শনাক্তের ১০ দিন পর ১৮ মার্চ দেশে প্রথম মৃত্যুর তথ্য নিশ্চিত করে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। ২৬ নভেম্বর তা সাড়ে ছয় হাজার ছাড়িয়ে যায়। এর মধ্যে ৩০ জুন এক দিনেই ৬৪ জনের মৃত্যুর খবর জানানো হয়, যা এক দিনের সর্বোচ্চ মৃত্যু।

জনস হপকিন্স বিশ্ববিদ্যালয়ের তালিকায় বিশ্বে শনাক্তের দিক থেকে ২৬তম স্থানে আছে বাংলাদেশ, আর মৃতের সংখ্যায় রয়েছে ৩২তম অবস্থানে।

বিশ্বে এ পর্যন্ত শনাক্ত রোগীর সংখ্যা ইতোমধ্যে ৬ কোটি ৩৯ লাখ পেরিয়েছে; মৃতের সংখ্যা ছাড়িয়ে গেছে ১৪ লাখ ৮১ হাজার।

বাংলাদেশে এ পর্যন্ত মারা যাওয়া ৬ হাজার ৭১৩ জনের মধ্যে ৫ হাজার ১৪১ জনই পুরুষ এবং ১ হাজার ৫৭২ জন নারী। তাদের মধ্যে ৩ হাজার ৫৭৫ জনের বয়স ছিল ৬০ বছরের বেশি। এছাড়াও ১ হাজার ৭৪৭ জনের বয়স ৫১ থেকে ৬০ বছরের মধ্যে, ৮০৭ জনের বয়স ৪১ থেকে ৫০ বছরের মধ্যে, ৩৪৭ জনের বয়স ৩১ থেকে ৪০ বছরের মধ্যে, ১৫০ জনের বয়স ২১ থেকে ৩০ বছরের মধ্যে, ৫৪ জনের বয়স ১১ থেকে ২০ বছরের মধ্যে এবং ৩৩ জনের বয়স ছিল ১০ বছরের কম।

এর মধ্যে ৩ হাজার ৬১৮ জন ঢাকা বিভাগের, ১ হাজার ২৬৬ জন চট্টগ্রাম বিভাগের, ৪০৮ জন রাজশাহী বিভাগের, ৪৯৯ জন খুলনা বিভাগের, ২১৯ জন বরিশাল বিভাগের, ২৬৬ জন সিলেট বিভাগের, ৩০৩ জন রংপুর বিভাগের এবং ১৩৪ জন ময়মনসিংহ বিভাগের বাসিন্দা ছিলেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Check Also

তুরস্ক এবার যেসব শর্ত জুড়ে দিল

ফিনল্যান্ড-সুইডেন ন্যাটোতে যোগ দিতে চায়। কিন্তু তাদের ন্যাটোতে যোগ দেওয়ার পথে বাধা হয়ে দাড়…