Home আন্তর্জাতিক পেনসিলভেইনিয়ায় ট্রাম্পের ভোটের মামলা খারিজ
আন্তর্জাতিক - নভেম্বর ২২, ২০২০

পেনসিলভেইনিয়ায় ট্রাম্পের ভোটের মামলা খারিজ

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচন নিয়ে আশার শেষ আলোটুকুও নিভতে শুরু করেছে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের। এর আগে জর্জিয়াতে আবেদন করেও ফল উল্টাতে পারেননি ট্রাম্প। ডেমোক্রেটিক প্রার্থী বাইডেনকেই ওই অঙ্গরাজ্যে বিজয়ী ঘোষণা করা হয়েছিল। মিশিগান বলছে, তারা নির্বাচনি ফল পুনর্গণনায় আগ্রহী নয়। তারা ফল ঘোষণার ক্ষেত্রে ‘সাধারণ পদ্ধতি’ই অনুসরণ করতে চায়। সর্বশেষ গুরুত্বপূর্ণ নির্বাচনী ব্যাটলগ্রাউন্ড পেনসিলভানিয়ার এক জেলা জজ আদালত ডোনাল্ড ট্রাম্পের প্রচারণা দলের দায়ের করা মামলাটি খারিজ করে দিয়েছেন।

যদিও রিপাবলিকানদের মামলাটিতে জেতার সম্ভাবনা বরাবরই কম ছিল। তবে ট্রাম্পের সমর্থক ও তার লিগ্যাল টিম, বিশেষ করে প্রেসিডেন্টের ব্যক্তিগত অ্যাটর্নি রুডি গিলিয়ানি পেনসিলভানিয়ার ফেডারেল বিচারকদের ওপর ভরসা করে জেতার আশা ধরে রেখেছিলেন। তবে রাজ্যটির সুপরিচিত রিপাবলিকান বিচারক ম্যাথিও ব্র্যান ট্রাম্প সমর্থকদের সেই দাবি বাতিল করে দিয়েছেন।

সিএনএন জানিয়েছে- শনিবার মার্কিন জেলা আদালতের এ বিচারক লিখেছেন, বাদীরা আদালতকে প্রায় ৭০ লাখ ভোটারকে অধিকার বঞ্চিত করতে বলেছে। নির্বাচনী প্রতিযোগিতায় বাদীরা যে কঠোর প্রতিকার চেয়েছে, তেমন কোনও ঘটনা খুঁজে পায়নি এই আদালত।

অঙ্গরাজ্যটিতে এত বিপুল সংখ্যক ভোট বাতিলের দাবির সপক্ষে ট্রাম্প সমর্থকদের আইনজীবীরা বাস্তবিক প্রমাণ উপস্থাপন করতে না পারায় তাদের তীব্র ভাষায় তিরস্কার করেন এ বিচারক।

তিনি বলেন, কেউ যখন এমন চমকপ্রদ পরিণতির আশা করে তখন বাদীকে শক্ত আইনি যুক্তি এবং ব্যাপক দুর্নীতির বাস্তবিক প্রমাণে সজ্জিত হয়ে আসতে হয়, যেন তাদের প্রস্তাব মেনে নেয়া ছাড়া আদালতের কাছে আর কোনও বিকল্প না থাকে। কিন্তু, এমনটি ঘটেনি। এর পরিবর্তে আদালতে যোগ্যতাহীন এবং কল্পনাপ্রসূত অভিযোগের দুর্বল আইনি যুক্তি উপস্থাপন করা হয়েছে, যার কোনও প্রমাণও নেই।

বিচারক ব্র্যান বলেন, যুক্তরাষ্ট্রের ষষ্ঠ জনবহুল অঙ্গরাজ্যকে বাদ দেন, এখানে একজন ভোটারকেও অধিকার বঞ্চিত করা যায় না। আমাদের জনগণ, আইন এবং প্রতিষ্ঠানগুলোর দাবি আরও বেশি।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে জো বাইডেনের বিজয়ী হওয়ার ফল পাল্টে দিতে পেনসিলভানিয়াতে মামলায় জেতা খুবই জরুরি ছিল ট্রাম্পের। এ রাজ্যেরটিসহ নির্বাচনের দিন থেকে এ পর্যন্ত রিপাবলিকান শিবিরের অন্তত ৩০টি মামলা বাতিল বা প্রত্যাহার করা হলো।

আগামী সোমবারের মধ্যে পেনসিলভানিয়ায় কাউন্টিগুলোর ভোটের ফলাফল নিশ্চিত করার কথা।

প্রসঙ্গত, যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হতে পুরো দেশে ৫৩৮টি ইলেকটোরাল কলেজ ভোটের অন্তত ২৭০টি পেতে হয়। এর মধ্যে ২০ ইলেকটোরাল ভোটের রাজ্য পেনসিলভেইনিয়ায় জয় নিশ্চিত হওয়ায় গত ৭ নভেম্বর বাইডেনের হোয়াইট হাউজ নিশ্চিত হয়ে যায়।

সব রাজ্যের ভোট গণনা শেষে বাইডেন পেয়েছেন ৩০৬ ইলেকটোরাল ভোট, আর ২৩২ ইলেকটোরাল ভোট ট্রাম্পের পক্ষে গেছে।

নির্বাচনে হার স্বীকার করতে নারাজ প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প ভোট জালিয়াতির অভিযোগ করে এলেও কোনো প্রমাণ তিনি দেখাতে পারেননি।

যুক্তরাষ্ট্রের নির্বাচনে ভোটের চিত্র দেখেই পরাজিত প্রার্থীরা হার স্বীকার করে নেন, এবং বিজয়ী প্রার্থী সরকার গঠনের প্রস্তুতি শুরু করে; বহু বছর ধরে এই রেওয়াজ চলে আসছে। কিন্তু ট্রাম্প তা না করায় সেই প্রক্রিয়া বিলম্বিত হচ্ছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Check Also

সুইডেন-ফিনল্যান্ডের ন্যাটোর সদস্য হতে আবেদন

যুক্তরাষ্ট্রের নেতৃত্বাধীন সামরিক জোট ন্যাটোর সদস্যপদের জন্য আনুষ্ঠানিকভাবে আবেদন করেছে রা…