Home আন্তর্জাতিক যুদ্ধ শেষ করতে চান পুতিন যত দ্রুত সম্ভব

যুদ্ধ শেষ করতে চান পুতিন যত দ্রুত সম্ভব

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে সাক্ষাতে রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন বলেছেন, তিনি ইউক্রেনে যত দ্রুত সম্ভব যুদ্ধ শেষ করতে চান।

১৭ সেপ্টেম্বরসাংহাই কোঅপারেশন অর্গানাইজেশনের (এসসিও) সম্মেলনে দ্বিপক্ষীয় পার্শ্ব-বৈঠকে এ দুই নেতার সাক্ষাৎ হয়।

এ সময় বর্তমান পরিস্থিতি যুদ্ধের নয় বলে পুতিনকে জানান মোদী।

আল জাজিরার খবরে বলা হয়েছে, ইউক্রেনের সংঘাত সম্পর্কে নয়াদিল্লির উদ্বেগ বুঝতে পারেন বলে মোদীকে জানান পুতিন। উজবেকিস্তানের সামারকান্দে তিনি ভারতীয় প্রধানমন্ত্রীকে আরও বলেন, ইউক্রেনের সংঘাতের বিষয়ে আপনার অবস্থান, উদ্বেগ যা আপনি প্রতিনিয়ত প্রকাশ করেন তা আমি জানি। আমরা যত তাড়াতাড়ি সম্ভব যুদ্ধ বন্ধ করার জন্য সবকিছু করব। দুর্ভাগ্যবশত, ইউক্রেন আলোচনা প্রক্রিয়া প্রত্যাখ্যান করার ঘোষণা দিয়েছে। তারা সামরিক উপায়ে নিজের লক্ষ্য অর্জন করতে চায়।

এ সময় ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী পুতিনকে বলেন, আমি জানি যে আজকের যুগ যুদ্ধের যুগ নয়। এ বিষয়ে আমি আপনার সাঙ্গে ফোনেও কথা বলেছি। আজ আমরা মুখোমুখি কথা বলার সুযোগ পাচ্ছি। কীভাবে শান্তির পথে অগ্রসর হতে পারি এ নিয়ে কথা বলতে চাই। আপনি জানেন বেশ কয়েক দশক ধরে ভারত-রাশিয়া একসঙ্গে রয়েছে। এখন খাদ্য, জ্বালানি নিরাপত্তা ও সার সংকট সমাধানের উপায় আমাদের বের করতে হবে।

ইউক্রেন থেকে ভারতীয় শিক্ষার্থীদের সরিয়ে আনার ক্ষেত্রে সহযোগিতায় রাশিয়ার পাশাপাশি ইউক্রেনকে ধন্যবাদ জানান নরেন্দ্র মোদি। তিনি আরও বলেন, আমাদের বাণিজ্য বাড়ছে। ভারতীয় বাজারে রাশিয়ান সারের অতিরিক্ত সরবরাহের জন্যও আপনাকে ধন্যবাদ। এটি আট গুণেরও বেশি বেড়েছে। আমি আশাবাদী, এটি ভারতের কৃষি খাতে বিশাল সহায়ক হতে চলেছে।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম টাইমস অব ইন্ডিয়ার খবরে বলা হয়েছে, শনিবার প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর জন্মদিন। দিনটির জন্য আগাম শুভেচ্ছা জানান পুতিন। তিনি বলেন, আমার প্রিয় বন্ধু, কাল আপনি আপনার জন্মদিন পালন করবেন। ইউক্রেন সংঘাতে আপনার অবস্থান ও উদ্বেগ সম্পর্কে আমি অবগত। ইউক্রেনের উদ্দেশ্য ও দেশটিতে কী ঘটছে তা সম্পর্কে আপনাকে আমরা অবহিত করবো।

এর আগে ফোনে কথা হয় পুতিন-মোদীর। শান্তি ও সংলাপের পথে অগ্রসর হওয়ার জন্য রুশ প্রেসিডেন্টকে ফোন করেছিলেন মোদী। যুদ্ধ না চাইলেও রাশিয়ার সঙ্গে দীর্ঘ ও পুরনো সম্পর্কের খাতিরে বিশ্ব পর্যায়ে সংঘাতে কোনো পক্ষ নেওয়া থেকে বিরত থেকেছে ভারত।

রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধ আট মাসে গড়াচ্ছে। সম্প্রতি রাশিয়ার দখলকৃত ভূখণ্ড নিজেদের নিয়ন্ত্রণে নিতে পাল্টা আক্রমণ শুরু করেছে ইউক্রেন। এর মধ্যেই গুরুত্বপূর্ণ ইউক্রেনীয় শহর থেকে নিজেদের সেনা প্রত্যাহার করেছে রাশিয়া। বিষয়টি নিয়ে প্রকাশ্যে প্রথমবারের মতো মন্তব্যও করেন পুতিন। তিনি বলেন, ইউক্রেনের সাম্প্রতিক পাল্টা আক্রমণ রাশিয়ার পরিকল্পনা পরিবর্তন করবে না। শনিবার (১৭ সেপ্টেম্বর) এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানায়

পুতিন আরও বলেন, এখনও নিজেদের পুরো বাহিনী মোতায়েন করেনি রাশিয়া। ডনবাসে আমাদের অভিযান বন্ধ হচ্ছে না। সেনারা এগিয়ে যাচ্ছে। তারা ধীরলয়ে আরও বেশি এলাকা দখল করে নিচ্ছে।

খবরে আরও বলা হয়, ইউক্রেনে এখন পর্যন্ত আনুষ্ঠানিকভাবে যুদ্ধ ঘোষণা করেনি রাশিয়া। মস্কো শুরু থেকেই বলছে এটি তাদের বিশেষ সামরিক অভিযান। উজবেকিস্তানে শীর্ষ সম্মেলনের পর পুতিনের মন্তব্যে বোঝা যায়, রাশিয়া পিছিয়ে গেলেও সরে যায়নি। যেকোনো সময় বড় কোনো ঘটনা ঘটে থাকতে পারে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Check Also

অব্যাহত অস্থিরতা চালের বাজারে

দীর্ঘদিন ধরে সিন্ডিকেটের নিয়ন্ত্রণে থাকায় চালের বাজারের অস্থিরতা কমছে না। গত এক বছরেরও বেশ…