Home আইন-আদালত লাশকাটা ঘরে মৃত নারীদের ধর্ষণ, যা বলল মুন্না
আইন-আদালত - নভেম্বর ২২, ২০২০

লাশকাটা ঘরে মৃত নারীদের ধর্ষণ, যা বলল মুন্না

নিউজ ডেস্কঃ রাজধানীর শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে নারীদের লাশের সঙ্গে বিকৃত যৌনাচারের অভিযোগে পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগের (সিআইডি) হাতে গ্রেপ্তার মুন্না (২০) স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন।

শুক্রবার সন্ধ্যায় মুন্না ফৌজদারি কার্যবিধির ১৬৪ ধারায় আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন। পরে তাকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

জবানবন্দিতে অস্বাভাবিক অপকর্মের কথা স্বীকার করলেও তিনি কৃতকর্মের জন্য অনুতপ্ত নন বলে জানান। তার ভাষায়, ‘মৃত মানুষের সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক দোষের কিছু না। ’

সিআইডি কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, মুন্না যে অপরাধ করেছেন, সেজন্য তার যাবজ্জীবন কারাদণ্ড হতে পারে।

এদিকে মুন্নার এমন অপকর্ম প্রকাশ হওয়ার পর সারা দেশের হাসপাতাল মর্গগুলোতে নজরদারি বাড়িয়েছে পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি)।

সিআইডি বলছে, গত বছরের ২৯ মার্চ থেকে চলতি বছরের ২৩ আগস্ট পর্যন্ত অন্তত পাঁচজন মৃত কিশোরীর লাশ ধর্ষণ করা হয়েছে বলে তারা প্রমাণ পেয়েছেন। এই কিশোরীদের বয়স ছিল ১১ থেকে ১৭ বছর।

আত্মহত্যার পর তাদের লাশ ময়নাতদন্তের জন্য সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালের মর্গে নেয়া হয়েছিল। লাশগুলোর সঙ্গে শারীরিক সংসর্গ করেছিলেন ডোমের সহযোগী মুন্না ভক্ত (২০)। তাকে বৃহস্পতিবার রাতে গ্রেপ্তার করেছে সিআইডি।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Check Also

সুপ্রিম কোর্টের ১২ বিচারপতি করোনায় আক্রান্ত

ঢাকা: কয়েক দিন ধরে সংক্রমণ বৃদ্ধির মধ্যে সুপ্রিম কোর্টের ১২ জন বিচারপতি করোনা আক্রান্ত হও…